Home » জন্মনিবন্ধন বানাতে চান? কি কি কাগজ দরকার জানেন না ?আসুন জেনে নিই কি কি কাগজ পত্র লাগবে
Jonmo-Nibondhon-New-Apply-For-All-Documents-Details

জন্মনিবন্ধন বানাতে চান? কি কি কাগজ দরকার জানেন না ?আসুন জেনে নিই কি কি কাগজ পত্র লাগবে

জন্মনিবন্ধন বানাতে চান? কি কি কাগজ দরকার জানেন না ?আসুন জেনে নিই কি কি কাগজ পত্র লাগবে

আসসালামু অলাইকুম। আমি জানি আপনারা সবাই ভালোই আছেন ও সাথেই আছেন। আজকে আপনাদের দেখাবো ও জানাবো কিভাবে আপনি আপনার ছেলে মেয়েদের ও আপনাদের জন্ম সনদ বের করবেন তার সম্পর্কে জানি।

Jonmo-Nibondhon-New-Apply-For-All-Documents-Details

জন্মনিবন্ধন আবেদন বিষয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও বিষয়াদির বিবরণ

চলুন আগে জেনে নিই সরকারী কিছু কাজের কথা তারপর আমরা আসতেছি ডিটেইলস আলোচনায়।

বয়স ০ হতে ৪৫ দিন হলে  জন্মনিবন্ধন বানাতে কি কি কাগজ দরকারঃ- 

 

১। ইপিআই (টিকার) কার্ড

২। পিতা-মাতার অনলাইন জন্মনিবন্ধন সহ জাতীয় পরিচয়পত্র কার্ড লাগবে।

৩। বাসার হোল্ডিং নাম্বার এবং চৌকিদারী ট্যাক্স এর রশিদ হাল সন লাগবে।

৪। আবেদনকারী/ অভিভাবকের মোবাইল নম্বার।

৫। ফরম এর সাথে ০১ কপি রঙ্গিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি লাগবে।

 বয়স ৪৬ দিন হতে ৫ বছর হলে জন্মনিবন্ধনে কি কাগজ প্রয়োজনঃ- 

 

১। ইপি.আই (টিকার) কার্ড/স্বাস্থ্য কর্মীর প্রত্যায়ন পত্র স্বাক্ষর ও সীল সহ প্যাডে দিতে হবে।

২। পিতা-মাতার অনলাইন জন্মনিবন্ধন সহ জাতীয় পরিচয় পত্র কার্ড লাগবে।

৩। প্রয়োজন ক্ষেত্রে স্কুল প্রধান শিক্ষকের প্রত্যয়ন সহ বিদ্যালয়ের প্রত্যয়নের প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট লাগবে। ৪ । বাড়ীর হোল্ডিং নাম্বার এবং চৌকিদারী ট্যাক্স এর রশিদ হাল সন লাগবে।

৫। আবদেনকারী/অভিভাবকের মোবাইল নাম্বার।

See also  সারা দেশে ভোটার তালিকা হালনাগাদের কার্যক্রম শুরু

৬। ফরম এর সাথে ০১ কপি রঙ্গিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি লাগবে।

 

বয়স ৫ বছরের অধিক হলে কি কাগজ পত্র লাগবেঃ- 

 

১। শিক্ষা যোগ্যতার সনদপত্র (পি.এস.সি/জে.এস.সি/এস.এস.সি) শিক্ষা যোগ্যতা সনদপত্র না থাকলে সরকারি হাসপতালের এমবিবিএস ডাক্তারের স্বাক্ষর ও সীল সহ প্রত্যয়ন সদন এবং জন্ম নিবন্ধন আবনেদ ফরমের ০৭ (সাত) এর ১ নং কলামের স্বাক্ষর ও সীল বাধ্যতামূলক।

২। উল্যেখ্য যে, যাদের জন্ম ০১/০১/২০০১ এর পর সে ক্ষেত্রে পিতা-মাতার অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সহ জাতীয় পরিচয় পত্র বাধ্যতামূলক।

৩। উল্যেখ্য যে, যাদের জন্ম ০১/০১/২০০১ পূর্বে/আগে ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয় পত্র বাধ্যতামূলক।

৪। যদি জন্ম ০১/০১/২০০১ এর পূর্বে/আগে হয় সেক্ষেত্রে পিতা মাতা মৃত হলে মৃত্যু সনদ বাধ্যতামূলক।

বয়স ৫-২১ বছর হলে কি কাগজ পত্র লাগবেঃ- 

৫। উল্লেখ্য যে, যাদের জন্ম ০১/০১/২০০১ এর পর তাদের পিতা মাতা মৃত হলে প্রথমে অনলাইন আবেদন জন্ম নিবন্ধন গ্রহণ করা পর অনলাইন মৃত্যু নিবন্ধন সনদ গ্রহণ উভয় সনদ আবেদন পত্রে সহিত দাখিল করতে হবে।

৬। বাড়ীর হোল্ডিং নাম্বার এবং চৌকিদারী ট্যাক্স এর রশিদ হাল সন লাগবে।

৭। আবেদনকারী/অভিভাবকের মোবাইল নম্বর। ৮। ফরম এর সাথে ০১ কপি রঙ্গিণ পাসপোর্ট সাইজের ছবি লাগবে।

৯। আবেদনের সাথে সংযুক্ত সকল ডকুমেন্টপত্র সরকারি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক/ইউপি সদস্য/ইউপিসদস্য কর্তৃক স্বাক্ষর সহ সীল বাধ্যতামূলক।

১০। আবেদনের সাথে সংযুক্ত সকল ডকুমেন্টপত্র আবেদন জমা দেওয়ার সময় মূলকপি প্রদর্শন করতে হবে।

১১। উপরুক্ত চাহিত ডকুমেন্ট ছাড়া আবেদনপত্র কোন প্রকার গ্রহণযোগ্য নয়।

 

উপরের সব গুলা কথা বার্তা আইন অনুসারে সরকারী নিয়ম। এখন আমি আপনাদের কিছু বাস্তব অভিগতা থেকে কিছু জানাবো। চলুন শুরু করি।

 

কিছু কথা যাদের বাচ্চার জন্ম 45 দিনের নিচে তাদের বাচ্চার জন্ম গ্রহণ কার্ড করতে কোন টাকা নেয়া হয় না।   এমনকি যাদের মৃত্যু 45 দিনের মধ্যে তাদের জন্ম নিবন্ধন কার্ড বানাতে কোন প্রকার টাকা নেয়া হয় না।  

শূন্য থেকে  21 বছর এর মধ্যে তাদের জন্মদিন কার্ড বানাতে পিতা ও মাতার জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে থাকা প্রয়োজন।  যদি অনলাইনে না থাকে তাহলে আগে পিতা ও মাতার জন্ম নিবন্ধন কার্ড ডিজিটাল বানাতে হবে।  তবেই তার সন্তানের জন্য জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল করতে পারবেন।

See also  Primary Assistant Teacher Result 2022 dpe.gov.bd

 যাদের বয়স 21 বছরের উপরে তারা জন্ম নিবন্ধন কার্ড বানাতে চাইলে তাদের আইডি কার্ড দিয়েই বানাতে পারবে।

 

যাদের মনে নানান রকম প্রশ্ন ঘুরপাক খায় তারা নিচের প্রশ্ন ও উত্তর জেনে নিনঃ-

আমাদের মনে নানান ধরনের প্রশ্ন ঘুরপাক খায় সব সময়। যেসকল কিছু প্রশ্ন নিয়ে আজকে কথা বলবো । চলুন শুরু করি আর জেনে নিই।

প্রশ্নঃ আমার হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন আছে, সেখানে আমার সার্টিফিকেট বা অন্য যেকোন কাগজ পত্র এর সাথে কোন রকম মিল নেই তাহলে আমি আমার প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র এর সাথে মিলিয়ে কিভাবে জন্ম নিবন্ধন বানাতে পারি? 

উত্তরঃ আপনার জন্ম নিবন্ধন টি আগে অনলাইনে চেক করতে হবে। অনলাইনে চেক করার জন্য আপনাকে অনলাইনে সাই্টে  How To Check Jonmo Nibondhon Online  গিয়ে চেক করতে হবে । যে আপনার জন্ম নিবন্ধন টি অনলাইনে আছে কিনা ।

যদি না থাকে তাহলে আপনি আপনার সার্টিফিকেট অথবা আইডি কার্ড অথবা যে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র অনুসারে জন্ম তারিখ, বাবা-মার নাম দিতে চান সেই ডকুমেন্টস নিয়ে আপনি ইউনিয়ন পরিষদে চলে যাবেন । অথবা অনলাইনে এপ্লাই করলে ওই অনুসারে এপ্লাই করবেন আর যখন আপনার ডকুমেন্ট সাবমিট করতে বলবে ।

তখন আপনার ওই ডকুমেন্টগুলো সাবমিট করবেন যেমন স্কুলের সার্টিফিকেট, আইডি কার্ড অন্যান্য পড়ালেখার কোন কিছু হতে পারে কোনো প্রতিষ্ঠানের সার্টিফিকেট অথবা  ডাক্তারদের দেওয়া সিল সহ একটি প্রত্যয়নপত্র অথবা সার্টিফিকেট। 

 

প্রশ্নঃ-  আমার জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে বাংলা আছে ইংলিশ নেই, সে ক্ষেত্রে আমি কি কাজ করলে আমার বাংলা ও ইংরেজি দুটোই একসাথে জন্ম নিবন্ধন কার্ড হাতে পাব। 

 উত্তরঃ-  আপনাকে অনলাইনে অথবা কম্পিউটারের দোকানে গিয়ে  বা  ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে অনলাইনে আবেদন করতে হবে তথ্য সংশোধনের জন্য। 

ওইখানে গিয়ে আপনার বিষয়টি সিলেক্ট করে আপনার নাম ইংলিশে, পিতার নাম ইংলিশে, মাতার নাম ইংলিশে ও ঠিকানাটি ইংলিশ বাংলা দুটো দিয়ে এপ্লাই করলে । আপনি আপনার ঠিকানা অনুসারে ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে নিয়ে আসতে পারবেন। জন্ম নিবন্ধন কার্ড এর জন্য যে টাকা নেয়া হয় । তথ্য সংশোধনের জন্য  সেই টাকা নেওয়া হবে।

See also  বাংলাদেশের আয়তন কত এবং জনসংখ্যা কত কোটি বর্তমান

 

প্রশ্নঃ  আমার 21 বছর বয়স হয়ে গেছে আইডি কার্ড আছে। কিন্তু আমার ছেলে সন্তানের জন্য অথবা নিজের জন্য  জন্ম নিবন্ধন কার্ড বানাতে হবে।  এখন আমি কি কাগজপত্র অথবা কিভাবে জন্ম নিবন্ধন  ডিজিটাল করতে পারি। 

 

 উত্তরঃ-  আপনার যদি আইডি কার্ড থাকে তাহলে আইডি কার্ডের ফটোকপি সাথে আপনার এক কপি ছবি নিয়ে আপনার নিকটস্থ ইউনিয়ন পরিষদে চলে যাবেন।  অথবা আপনি নিজেও করতে পারেন আবেদন করে অথবা যেকোন কম্পিউটারের দোকানে গিয়ে অনলাইনে আবেদন করতে পারেন।

প্রশ্নঃ-   অনলাইনে তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন করেছে এখনো এপ্রুভ হয়নি অথবা রিজেক্ট দেখাচ্ছে  এখন আমি কি করতে পারি ? 

 

 উত্তরঃ-  অনলাইনের জন্য আবেদন করেছেন জন্ম নিবন্ধন কার্ড এর জন্য আবেদন করেছেন। রিজেক্টেড অথবা নট অ্যাপলাই, নটঅ্যাপ্রভ  অথবা নানান ধরনের লেখা এ থেকে কি সমাধান পাবেন। 

 আসলে আমরা যখন অনলাইনে এপ্লাই করি তখন এইটা ইউনিয়ন পরিষদে আন্ডারে করা হয়। সেইদিন পরিষদের সচিব এর নিকট একটা এপ্লাই চলে যায়।  সে দেখে যদি মনে করেন যে এটা করবো এটা করবো এটা করবো এটা করবো না এটা ডিলিট করে দিবো যখন ডিলেট করে দিবে তখন আপনার কাছে একটা লেখা চলে আসবে ।

যখন আপনি অনলাইনে চেক করবেন। আসলে এইগুলা সচিব এর নিকট থাকে সে যদি মনে করে যে আমি  এই এপ্লাই টা এপ্রুভ করব এইটা অ্যাপ্রভেদ করবো না সে সব পারে। 

 এইখানে আপনার কোন হাত নেই,  তবে একটা কথা আপনি যোগাযোগ করতে পারেন ইউনিয়ন পরিষদে তাহলে সমাধান পাবেন।

কুরুলুস উসমানের সিজন ১-২ এর সকল ভলিউমের Download লিংক (বাংলা সাবটাইটেল এ)

আরো নতুন নতুন টিপস ও নিউজ পেতে সাথেই থাকুন। ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে ফেসবুকে অথবা অন্য কোথাও শেয়ার করবেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top